1. news@banglaroitizzo.com : BanglarOitizzo :
  2. imrankhanbsl01@gmail.com : Imran Khan : Imran Khan
  3. banglaroitizzo.news@gmail.com : newseditor :
মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন

অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করা হয় রেজাউলকে

খান ইমরান
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৩৮ বার পড়া হয়েছে

শিক্ষানবিস আইনজীবী রেজাউল করিমকে আটকের পর থেকেই শুরু হয় শারীরিক নির্যাতন। আটক থেকে শুরু করে গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয় নিয়েও তার উপর অমানুষিক নির্যাতন চালায় এসআই মহিউদ্দিন মাহি। এমনকি তীব্র শীতেও তার গায়ে কোন পোশাক ছিল না, দেয়া হয়নি খাবার। এ অভিযোগ পাওয়া গেছে নিহতের বাবা ও স্ত্রীর কাছ থেকে।

এছাড়া রেজাউলকে গাড়িতে তোলার পূর্বে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়। এদিকে সহকর্মী রেজাউল করিমকে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে আইনজীবীরা অভিযুক্ত এসআই মহিউদ্দিনের কঠোর বিচারের দাবি জানিয়ে নগরীতে মানববন্ধন করেছেন। সুষ্ঠু বিচার না পেলে কঠোর আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে সিনিয়র আইনজীবীরা।

নিহতের বাবা ইউসুফ মুন্সি ও স্ত্রী মারুফা বেগম অভিযোগ করেন, ধরার পরপরই নির্যাতন শুরু করে গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মহিউদ্দিন মাহি। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে মাদক উদ্ধারের দাবী করা হলেও স্থানীয় বাসিন্দাদের মাদক দেখানো হয়নি। গ্রেফতারের ২ ঘন্টা পর তাকে হাজির করা হয় নগর গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে। সেখানে তীব্র শীতের মধ্যে খালী গায়ে ক্ষুধার্ত অবস্থায় বসিয়ে রাখা হয়।

 

গ্রেফতারের পর থেকে থানায় সোপর্দ করার আগ পর্যন্ত তার উপর অমানুষিক নির্যাতন চালানো হয়। নিহত রেজাউল করিমের বিভিন্ন একাডেমিক সার্টিফিকেট নিয়ে বিলোপ করছেন তার বৃদ্ধ বাবা-মা। স্বামী হারানোর শোকে বার বার মুর্ছা যাচ্ছিন রেজাউলের স্ত্রী। তারা জানান, বাবার দেয়া টাকায় হাত খরচ চালাত রেজাউল। সে কোনভাবে মাদক কারবারের সাথে জড়িত নয়। তারা এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে অভিযুক্তের এসআই মহিউদ্দিনের কঠোর বিচার দাবী করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রেজাউলকে গ্রেফতারের পরপরই নির্যাতন করতে করতে গোয়েন্দা পুলিশের গাড়িতে তোলা হয়। এ সময় তাকে প্রকাশ্যে মেরে ফেলার হুমকি দেয় এসআই মহিউদ্দিন। এ সময় তার কাছ থেকে কোন মাদক উদ্ধার করতে দেখেননি দাবী প্রত্যক্ষদর্শীদের। শিক্ষনবিস আইনজীবী রেজাউল করিমকে পুলিশ নির্যাতন করে হত্যা করেছে দাবী করে সোমবার বেলা ১২টার দিকে নগরীর জেলা জজ আদালতের সামনে ফজলুল হক এভিনিউতে মানববন্ধন করেন আইনজীবীরা। এ সময় তারা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে অভিযুক্তের ফাঁসির দাবি জানান।

 

শিক্ষানবিস আইনজীবী পারভেজ বীনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বরিশাল আইনজীবী সমিতির সিনিয়র আইনজীবী মহসিন মন্টু, আবুল কালাম আজাদ, মিলন ভূইয়াসহ অন্যান্যরা। রেজাউল করিম হত্যার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে অভিযুক্ত (ডিবি) পুলিশ অফিসারের বিচারের প্রত্যশা করে মানববন্ধনে অংশগ্রহন করেন বরিশাল আনইজীবী সমিতির সদস্যরা। মানববন্ধনে আইনজীবী সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন, রেজাউলকে বাসার সামনের চায়ের দোকান থেকে ধরে নিয়ে পরবর্তীতে নির্মমভাবে টর্চার শেষে দুইটি মিথ্যা মামলার নাটক সাজিয়ে হত্যা করা হয়েছে। শিক্ষানবিস রেজাউল হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত না হলে কঠোর আন্দোলনের হুমকি দেন বক্তারা। বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার শাহাবুদ্দিন খান বলেন, রেজাউলের মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশ আইনের কোন ব্যতয় ঘটলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক এবং আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রসঙ্গত, গত ২৯ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ৮টায় শিক্ষানবিস আইনজীবী রেজাউল করিমকে নগরীর সাগরদী হামিদ খান সড়ক থেকে ধরে নিয়ে যায় গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মহিউদ্দিন। ওই রাতেই মহিউদ্দিন বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। ৩০ ডিসেম্বর ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক কারাগারে প্রেরনের নির্দেশ দেন।

 

পহেলা জানুয়ারী রাত সাড়ে ৯টায় সে কারা হাসপাতালে অসুস্থ হলে শের-ই বাংলা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। ২ জানুয়ারী দিবারাত ১২টা ৫ মিনিটে তার মৃত্যু হয়। ৩ জানুয়ারী দুপুরে মর্গে ময়না তদন্ত শেষে ওইদিন রাতে নগরীর রূপাতলী এলাকায় সিটি করপোরেশনের গোরস্থানে দাফন করা হয় রেজাউলকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

নিউজ ক্যাটাগরি

©দৈনিক বাংলার ঐতিহ্য (2019-2020)