1. news@banglaroitizzo.com : BanglarOitizzo :
  2. imrankhanbsl01@gmail.com : Imran Khan : Imran Khan
  3. banglaroitizzo.news@gmail.com : newseditor :
সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ১১:২১ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠিতে দরিদ্র গৃহকর্মীর সন্তানদের লেখাপড়ার দায়িত্ব নিতে চাচ্ছে ” স্বপ্নপুরন সমাজকল্যাণ সংস্থা

রিপোর্ট : ইমাম বিমান
  • প্রকাশিত: শনিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৯৭ বার পড়া হয়েছে

ঝালকাঠিতে দরিদ্র গৃহকর্মীর সন্তানদের স্বপ্ন পূরনে লেখাপড়ার দায়িত্ব নিয়ে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে এগিয়ে এলো জেলার অন্যতম সামাজিক সংগঠন স্বপ্নপুরন সমাজকল্যাণ সংস্থা।

এ উপলক্ষে আজ স্বপ্নপুরন সমাজকল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এইচ এম রিয়াজ খান অশ্রু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে তার ব্যক্তিগত আইডিতে ঝালকাঠি পৌরসভাধীন ৩নং ওয়ার্ডের সকল বাসিন্দাদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে গৃহকর্মী / কাজের বুয়া যাদের মেধাবী সন্তানকে অর্থের অভাবে লেখা-পড়া করাতে পারছেন না ঐ সকল সন্তাদের স্বপ্নপুরন সমাজকল্যাণ সংস্থার মাধ্যমে বিনামূল্যে লেখাপড়া’র দায়িত্ব নেয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে ।

এ বিষয় স্বপ্নপুরন সমাজকল্যাণ সংস্থা ‘র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এইচ এম রিয়াজ খান অশ্রুর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, ঝালকাঠিতে স্বপ্নপুরন সমাজকল্যাণ সংস্থা একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন । আর এ সংগঠনের মাধ্যমে কোভিড-১৯ তথা করোনা ভাইরাস আক্রমনের শুরু থেকেই ঝালকাঠিতে সম্মোক যোদ্ধা হিসেবে কাজ করায় ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছে। শুধু তাই নয় ৪র্থ বর্ষ থেকে ৫ম বর্ষে পদার্পন উপলক্ষে এ ঝালকাঠিতে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে স্থানীয় যুবসমাজকে রক্তদানে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়ে দিনব্যাপী সংগঠনের কার্যালয়ের সামনে বিনা মূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্নয় করা হয়। এছারাও ঝালকাঠিতে গুনিজনদের গুনিজন সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে গুনিজন সম্মামনা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

চলমান শীতে সংগঠনের পক্ষ থেকে বৃদ্ধ অসহায়দের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরন করা হয়েছে আর তারই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আমরা আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে পৌরসভাধীন ৩নং ওয়ার্ড থেকে শুরু করেছি। মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে অসহায় মানুষদের পাশে দাড়ানোর তৌফিক দিলে এবং একই সাথে স্থানীয় জনবান্ধব ব্যক্তিরা এগিয়ে আসলে হয়তো পর্যায়ক্রমে প্রতেকটি ওযার্ডে এভাবে কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারবো বলে আমি মনে করি।

এ বিষয় ঝালকাঠি জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ পরিচালক আব্দুর রশিদ খানের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, এটা নিঃসন্দেহে একটি ভালো উদ্যোগ। তবে এ ধরনের সমাজকল্যান কাজ কারো একার পক্ষে সম্ভব না, তাই সমাজে অনেক বীত্তবান ব্যক্তিরা আছেন আর তারা এগিয়ে আসলে সকলের প্রচেস্টায় এই সংগঠনের মাধ্যমে এ সকল কার্যক্রম বাস্তবায়ন হয়তো সম্ভব হতে পারে বলে আমি মনেকরি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

নিউজ ক্যাটাগরি

©দৈনিক বাংলার ঐতিহ্য (2019-2020)